গাইবান্ধায় পুলিশের গাড়িতে আগুন ম্যাজিস্ট্রেটের গাড়ি ভাংচুর গ্রেফতার ৫

 

শেখ মোঃ সাইফুল ইসলাম (গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ)।

গত শনিবার গাইবান্ধা পৌরসভার নির্বাচন ফলাফল শেষ মহূর্তে, পূর্ব কোমরনই কুঠিপাড়া ভোট কেন্দ্রে ব্যালট গণনা কে কেন্দ্র করে, কিছু সংখ্যক জনতা উত্তেজিত হয়ে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন।

একপর্যায়ে উত্তেজিত হওয়া জনতা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একটি পিক-আপে অগ্নি সংযোগ করে, তিনটি পুলিশ ভ্যান ভাংচুর করে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপ করেন, এমনকি ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যসহ প্রায় ২৮/৩০ জন ব্যক্তি আহত হয়েছেন।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এ সংঘর্ষের ঘটনায়, র‌্যাব ও পুলিশ বাহিনী পৃথক পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেন।

মামলায় ৪১ জনের নাম উল্লেখ করেন র‌্যাব, অন্যদিকে ৪৭ জনসহ মোট ১শ’ ৫০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে, পুলিশ মামলা দায়ের করেন।

এদের মধ্যে ৫ জনকে পুলিশ গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে।

এ মামলা দায়েরের পর ভয় ও গ্রেফতার এড়াতে পূর্ব কোমরনই কুঠিপাড়া এলাকায় পুরুষ শূন্য হয়ে পড়ে।

উল্লেখ্য, গত শনিবার (১৬ জানুয়ারি) গাইবান্ধা পৌরসভার নির্বাচন শেষে পূর্ব কোমরনই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রের ব্যালট গণনা নিয়ে উত্তেজিত জনতার সাথে আইন-শৃংখলা বাহিনীর এক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে উত্তেজিত জনতার ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, ইটপাটকেল নিক্ষেপে কয়েকজন আহত হয়।

এসময় জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি প্রয়াত মোহাম্মদ খালেদের বাড়ি ও মটরসাইকেলসহ এলাকার কয়েকটি দোকান ভাংচুরের ঘটনা ঘটে।

এছাড়াও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর একটি গাড়িতে আগুন দেয়া হয়, এবং ম্যাজিষ্ট্রেটের একটি গাড়ি ভাংচুর করা হয়।

আইন-শৃংখলা বাহিনী অন্তত ৫০ রাউন্ড শর্টগানের ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *